Sunday, April 21, 2024

রবীন্দ্র চিত্রকলা:

     

রবীন্দ্রনাথ এক বহুমুখী প্রতিভা। বৈচিত্রের পূজারী।রবীন্দ্র প্রতিভা বহুধারায় প্রবাহিত হয়েছে। কবিতা,নাটক,সংগীত,গল্প,উপন্যাস,প্রবন্ধ,চিত্রকলা।তবে শেষের দিকে তিনি রঙ তুলি হাতে তুলে নেন। তার আকা ছবির সমাদর হয়েছে সারা বিশ্বে। তিনি হয়ে উঠেন শিল্পজগতের জ্যোতিষ্ক। শিল্পের ভিতর দিয়ে তিনি তার চিন্তার মুক্তি ঘটান।


রবীন্দ্র চিত্রকলার প্রধান বৈশিষ্ট্য হল তদানীন্তন ভারতীয় চিত্রকলার ইতিহাস এবং ঐতিহ্য থেকে সম্পূর্ণ বের হয়ে চিত্রজগতে নতুন এক ধারার সৃষ্টি। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকার শৈলী সম্পূর্ণ নিজস্ব ছিল। তিনি প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য কোন অঙ্কন পদ্ধতি অনুসরণ করেননি। চিত্ররচনায় তিনি যে একজন প্রতিভাধর তার প্রমান দিয়েছেন তার শিল্পকর্মের মধ্য দিয়ে। শিল্পের সকল শাখায় তার অবাদ বিচরণ ছিলো। চিত্রকলা তার থেকে বাদ পড়েনি। সাহিত্যের মতো চিত্রকলাতেও রয়েছে তার অবিস্মরনীয় অবদান। তার প্রথম দিকের অঙ্কনরীতি ছিলো রৈখিক।ক্রমে তার ছবিতে বর্ণের প্রলেপ দেখা দেয়। রবীন্দ্রনাথের চিত্রের বিষয়বস্তুর মধ্যে প্রাকৃতিক দৃশ্য যেমন উঠে এসেছে। তেমনই উঠে এসেছে জীব জন্তু, পাখি। তার একাধিক চিত্রে ডিম্বাকৃতি নারী মুখায়ব পরিলক্ষিত হয়। তাদের চোখের গভীরতা মর্মবেদী। রবীন্দ্রনাথ আত্মপ্রতিকৃতি নানা ভাবে করেছেন। নিজের ব্যক্তিত্ব আত্মপ্রতিকৃতিতে দারুন ভাবে মেলে ধরেন।

রবীন্দ্রনাথ পুরোদস্তুরর ছবি আঁকা শুরু করেন ১৯২৮ সাল থেকে। আজ আমরা ‘রবীন্দ্র চিত্রকলা’ বলতে যা বুঝি তা হল সেই সময় থেকে পরবর্তী দশ বারো বছরে আঁকা তার আড়াই হাজারের ওপর ছবি। তিনি ছবি আঁকার বিষয়ে প্রচলিত কোন নিয়ম রীতিকে মানলেন না। তিনি বিশ্বাস করতেন শিক্ষা কখনোই কোন বন্ধনকে স্বীকার করেনা । চিত্র রচনায় তিনি একান্তই স্বাধীন। নিজের মনের মতো চিত্র রচনা করে গেলেন একের পর এক। ভাসলেন মনের আনন্দে। তার চিত্রকলার রূপ আনন্দেরই রূপ। পাণ্ডুলিপির কাটাকুটি থেকেই মূলত তার ছবির সূত্রপাত। অনেকটাই খেলাচ্ছলে হিজিবিজি ইচ্ছেমতো তুলির আচর, সূক্ষ ধারালো নিবের খোঁচায় মূর্ত হয়ে উঠতো বিচিত্র সব ছবি ।এটাই তার চিত্রকলার প্রধান বৈশিষ্ট্য। এক অদ্ভুত সরলতা তার চিত্রকলায় রচিত হতো। তার ছবি ভারতীয় ঐতিহ্যগত চিত্রকলার কোন কাঠামোতেই শ্রেণীবিন্যাস করা যায় না। তার আঁকা ছবিগুলি লন্ডন, বার্মিংহাম, প্যারিস, বার্লিন, মিউনিখ, মস্কো, বোস্টন আর নিউইয়র্কে প্রদর্শনী হয় । বিদেশে তার আকা ছবিগুলি শিল্প সমালোচকদের প্রশংসা কুড়ায়। রবীন্দ্র চিত্রকলা সম্পর্কে শিল্পী বিনোদবিহারী মুখোপাধ্যায় বলেন, রবীন্দ্রনাথের শেষ কুড়ি বছরের সাহিত্য ও তাঁর মনের গতি বোঝবার জন্য তার আকা ছবিগুলোর বিশেষ মূল্য আছে। কবি রবীন্দ্রনাথকে চিত্রকর রবীন্দ্রনাথ নিয়ে গেছেন এক অন্য উচ্চতায় ।

By-সৃষ্টি কর